Nation & World

‘হিন্দু ধর্মে বিয়ে কোনও ফুর্তি বা চুক্তি নয়’, সমলিঙ্গে বিবাহ

সম্প্রতি সর্বোচ্চ আদালতে সমলিঙ্গে বিবাহকে বৈধতা দেওয়ার বিরোধিতা করে হলফনামা পেশ করেছিল সরকার। এবার আরএসএস-এর গলাতেও শোনা গেল সমলিঙ্গ বিবাহের বিরোধিতার সুর। মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘের সাধারণ সম্পাদক দত্তত্রেয় হোসাবলে বলেন, ‘বিবাহকে হিন্দুদের জীবনে সংস্কার হিসাবে বিবেচনা কর হয়। ভোগ বা চুক্তির জন্য বিয়ে করা হয় না। বরং সামাজিক কল্যাণের জন্য বিয়ে করা হয়।’ তিনি বলেন, ‘একসাথে বসবাস করা ভিন্ন। কিন্তু যাকে বিয়ে বলা হয়, তা হাজার বছর ধরে হিন্দু জীবনের একটি সংস্কার। দু’জন ব্যক্তি বিয়ে করে এবং একসাথে বসবাস করেন শুধুমাত্র নিজেদের জন্য নয়, পরিবারের জন্য এবং সামাজিক মঙ্গলের জন্য। বিয়ে যৌন উপভোগের জন্য নয়, চুক্তিও নয়।’ তাঁর মতে কেবলমাত্র বিপরীত লিঙ্গের মাধ্য়মে বিবাহ হওয়া সম্ভব। সমলিঙ্গের মধ্যে বিয়ে কখনই সম্ভব নয়। (⦾ সুখে থাকতে ‘চুক্তি’, সপ্তাহে ৩ দিন করে স্বামীকে পাবেন দুই স্ত্রী, আর বাকি ১ দিন?)

প্রসঙ্গত, ভারতে সমকামী বিবাহের আইনি স্বীকৃতি বিবেচনা করতে সম্মত হয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট। সেই মতো সম্প্রতি এই মামলার শুনানি হয়। সেখানেই সমলিঙ্গে বিবাহের দাবিতে দায়ের করা এই আবেদন খারিজ করার দাবি জানিয়ে হলফনামা পেশ করা হয় কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে। সরকারের তরফে দায়ের করা হলফনামায় বলা হয়, ‘সমলিঙ্গের সম্পর্ককে ভারতীয় পারিবারিক সম্পর্কের সঙ্গে তুলনা করা যায় না। ভারতীয় পরিবারের ধারণা হল স্বামী, স্ত্রী এবং তাদের সন্তান।’ কেন্দ্রের তরফে আরও জানানো হয়, সমলিঙ্গের সম্পর্ককে আইনি বৈধতা দেওয়ার মানে এই নয় যে সমলিঙ্গের বৈবাহিক সম্পর্ককে বৈধতা দিতে হবে। ‘সামাজিক কারণে’ সমলিঙ্গে বিবাহের বিরোধিতা করে কেন্দ্র। 

⦾ তৈরি হবে আরও একটি হুগলি সেতু, কোথায় হবে এই নয়া ব্রিজ? চিন্তাভাবনা রিং রোড নিয়েও

উল্লেখ্য, ২০১৮ সালের ৬ সেপ্টেম্বর এই ঐতিহাসিক রায়দানের মাধ্যমে সমকামী সম্পর্ককে অপরাধমুক্ত বলে ঘোষণা করেছিল সুপ্রিম কোর্ট। ব্রিটিশ জমানার বহু পুরোনো আইনকে প্রত্যাহার করে পাঁচ সদস্যের বিচারপতিদের বেঞ্চ জানিয়েছিল, ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩৭৭ ধারার আওতায় দু’জনের পূর্ণ সম্মতিতে সমকাম সম্পর্ক অপরাধ নয়। সেই পাঁচ বিচারপতির বেঞ্চে ছিলেন দেশের বর্তমান প্রধান বিচারপতি ডিওয়াই চন্দ্রচূড়ও। তবে সমকামী সম্পর্ক বৈধ হলেও সমকামী বিয়ে এখনও আইনি বৈধতা পায়নি ভারতে।

এই খবর ইউনিকাস প্রতিস্থাপন করেনি তাই এর কোনো কৃতিত্ব অথবা দ্বায়িত্ব ইউনিকাস এর নয়। দয়া করে এর উৎস টি খুঁটিয়ে দেখুন। এই পোস্ট টি আপত্তিকর হলে, তা অবিলম্বে মুছে ফেলতে আমাদের সত্বর যোগাযোগ করুন।